যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ নির্বাচনি কর্মকর্তাকে ‘বরখাস্ত’করলেন ট্রাম্প

0
110

যুক্তরাষ্ট্রের ৩ নভেম্বর নির্বাচন পরিচালনার সাইবার সিকিউরিটি ও ইনফ্রাস্টাকচার সিকিউরিটি এজেন্সির (সিসা) প্রধান ক্রিস ক্রেবসকে বরখাস্ত করার ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। খবর বিবিসি।

মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) মাইক্রো ব্লগিং ওয়েবসাইট টুইটারে প্রকাশিত এক বার্তায় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প জানিয়েছেন, নির্বাচন প্রক্রিয়া নিয়ে অত্যন্ত ভুল মন্তব্য করার দায়ে ওই কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

এর আগে, ওই শীর্ষ নির্বাচনি কর্মকর্তা ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভোট কারচুপির অভিযোগের প্রকাশ্য বিরোধিতা করেছিলেন।

এদিকে, নির্বাচন আয়োজনকারী কর্তৃপক্ষের ‘গুজব নিয়ন্ত্রণ’ ওয়েবসাইটকে কেন্দ্র করে ক্রিস ক্রেবস হোয়াইট হাউজের চক্ষুশূল হয়ে উঠেছেন বলে জানিয়েছে বিবিসি। ওই ওয়েবসাইট থেকে নির্বাচন সংক্রান্ত তথ্যের ফ্যাক্ট চেকিং করা হচ্ছে। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই স্বয়ং প্রেসিডেন্ট গুজব ছড়ানোয় ভূমিকা রাখছিলেন বলে ওয়েবসাইটের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল।

অন্যদিকে, বরখাস্ত হলেও নিজের মন্তব্য নিয়ে ক্রেবসের মধ্যে কোনো ধরণের আক্ষেপ দেখা যায়নি বলে জানিয়েছে বিবিসি। বরখাস্ত হওয়ার পর এক টুইটার বার্তায় ক্রিস ক্রেবস বলেছেন, অর্পিত দায়িত্ব পালন করতে পেরে তিনি সম্মানিত। আজকের ঘটনা থেকে আগামীকালের সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে হবে বলেও তিনি উল্লেখ করেছেন।

বরখাস্ত হওয়ার কিছুক্ষণ আগেয় ক্রিস ক্রেবস আরেকটি টুইটার বার্তায় তার বিরুদ্ধে আনা ট্রাম্পের অভিযোগগুলো খণ্ডন করতে দেখা গেছে। সেখানে তিনি বলেছেন, প্রেসিডেন্টের আনা কারচুপির অভিযোগের ব্যাপারে সাইবার সিকিউরিটি বিভাগ থেকে কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। ২০২০কে রক্ষা করতে এগিয়ে আসুন।

বিবিসি জানাচ্ছে, ৩ নভেম্বরের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে সুরক্ষিত নির্বাচন হয়েছে বলে গত সপ্তাহে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যে অল্প কয়েকজন কর্মকর্তা প্রকাশ্য ঘোষণা দিয়েছিলেন – ক্রেবস তাদের মধ্যে অন্যতম।

LEAVE A REPLY