রাজধানী থেকে নিখোঁজ হওয়া ৫ শিশু উদ্ধার

0
72

সোমবার (৪ অক্টোবর) রাতে রাজধানীর মিরপুর থেকে নিখোঁজ পাঁচ কন্যা শিশুকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার মধ্যে দুই শিশুকে তাদের পরিবারের কাছে তুলে দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে।তাদের মধ্যে দু’জনকে রাজধানীর সদরঘাট থেকে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) এবং দুজনকে থেকে নেত্রকোনা থেকে উদ্ধার করেছে মিরপুর থানা পুলিশ।এদিকে রাজধানীর রূপনগর থেকে নিখোঁজ আরেক শিশুকে গাজীপুর থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাকেও গতকাল উদ্ধার করা হয়। রূপনগর পুলিশ তাকে উদ্ধার করে।
ডিবি যে দুই শিশুকে উদ্ধার করেছে, তাদের রাজধানীর মিন্টো রোডের ডিবি কার্যালয়ে রাখা হয়েছে। আর মিরপুর ও রূপনগর পুলিশ যে তিন শিশুকে উদ্ধার করেছে, তাদের সংশ্লিষ্ট থানায় রাখা হয়েছে।পুলিশের মিরপুর বিভাগের উপ-কমিশনার আ স ম মাহতাব উদ্দিন গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, উদ্ধার হওয়া শিশুদের অভিভাবকদের কাছে হস্তান্তর করা হবে। এ ঘটনায় আইনি প্রক্রিয়া চলছে।এর আগে, গত ২৯ সেপ্টেম্বর মিরপুরের আনসার ক্যাম্প এলাকা থেকে নিখোঁজ হয়েছিল দুই শিশু। এরমধ্যে মা-বাবার সাথে থাকতেন ১০ বছরের শিশু চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী জামিয়া জাহান। কলম কেনার কথা বলে বাসা থেকে বের হন তিনি। তারপর থেকেই নিখোঁজ ছিলেন।জামিয়ার মা সকিনা খাতুন ওই সময় জানিয়েছিলেন, ‘কলম কেনার নাম নিয়ে বাড়ি থেকে বের হলে আর ফিরে আসেনি। এরপর বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ করলেও মেয়েকে পাইনি।’
একই সাথে নিখোঁজ হন তার প্রতিবেশি ১৩ বছরের আরেক শিশু জাকিয়া। সেদিন বাসা থেকে বের হবার পর দুই শিশু মিরপুরে তাদের পরিচিত দুইজনের সাথে দেখা করেন। সে রাতে কয়েকবার মোবাইল ফোন চালু করলেও বৃহস্পতিবার ভোর থেকে সেগুলো বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। এ ঘটনায় মিরপুর মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছিল তাদের পরিবার।আর গত শুক্রবার বিকেলে মিরপুরের জনতা হাউজিং এলাকা থেকে ১৩ ও ১৪ বছর বয়সী দুই শিশু নিখোঁজ হয়েছিলেন।এছাড়া গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর পল্লবীর বাসা থেকে বেরিয়ে যান তিন কলেজছাত্রী। তারা নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার ও মুঠোফোন নিয়ে গেছে বলে জানায় পরিবার। এ ঘটনায় চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কিন্তু বাসা থেকে বের হওয়া তিন ছাত্রীর এখনও খুঁজে পাওয়া যায়নি।তারা পাচার হয়ে থাকতে পারে এরকম আশঙ্কা থেকে সবকিছু খতিয়ে দেখছে পুলিশ। বলছে, পূর্ব পরিকল্পনা করেই বাসা থেকে পালিয়েছেন তারা। পরিবারের অভিযোগ, একটি চক্র তাদের দেশের বাইরে পাচার করার চেষ্টা করছিল।

LEAVE A REPLY