তিন মাস পর বাংলাদেশে ব্রিটিশ ভিসা কেন্দ্র খোলার সিদ্ধান্ত

0
268

করোনা মহামারির ফলে প্রায় সাড়ে তিন মাস বন্ধ থাকার পর বাংলাদেশে আবারও ব্রিটিশ ভিসাসেবা স্বাভাবিক হচ্ছে।

আগামী রোববার (১২ জুলাই) থেকে যুক্তরাজ্যে ভিসার আবেদন কেন্দ্রগুলো কার্যক্রম শুরু করবে।

যুক্তরাজ্যে ভিসার আবেদন করতে হয় আউটসোর্সিং প্রতিষ্ঠান ভিএফএস গ্লোবাল-এ। প্রতিষ্ঠানটি বুধবার (৮ জুলাই) সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে, রোববার থেকে ব্রিটিশ ভিসা ও ইমিগ্রেশন পর্যায়ক্রমে তাদের কার্যক্রম শুরু করছে। যাঁরা এর আগে নির্ধারিত তারিখে ভিসা আবেদন জমা দেওয়ার জন্য উপস্থিত হতে পারেননি, তারা নতুন অ্যাপয়েন্টমেন্টের জন্য তাদের অ্যাকাউন্ট লগইন করতে পারেন।

উল্লেখ্য, করোনা পরিস্থিতির কারণে গত ২৫ মার্চ ব্রিটিশ ভিসা আবেদন কেন্দ্রগুলো বন্ধ করা হয়।

এদিকে যুক্তরাজ্যের ভিসা কার্যক্রম শুরু হলেও আপাতত ইউরোপের ভিসা বন্ধই থাকছে বাংলাদেশিদের জন্য। পহেলা জুলাই থেকে নিরাপদ হিসেবে বিবেচিত ১৪টি দেশের নাগরিকদের জন্য ইউরোপ ভ্রমণে উন্মুক্ত করা হয়েছে। ওই তালিকায় বাংলাদেশের নাম নেই।

আগামী ৩১ ডিসেম্বর ব্রেক্সিটের ট্রান্সিশন সময়সীমা শেষ না হওয়া পর্যন্ত যুক্তরাজ্যবাসী ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়বে না।

ইউরোপে ঢুকতে পারবে যে ১৪ দেশ; অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, জাপান, আলজেরিয়া, জর্জিয়া, মন্টেনেগো, মরক্কো, নিউজিল্যান্ড, রুয়ান্ডা, সার্বিয়া, সাউথ কোরিয়া, থাইল্যান্ড, তুনেশিয়া এবং উরুগুয়ে। তবে চীন যদি সরকার ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশগুলির নাগরিকদের জন্য একটি পারস্পরিক ভ্রমণের চুক্তি সরবরাহ করে। সে ক্ষেত্রে ইইউ চীনকে ‘নিরাপদ তালিকায়’ যুক্ত করবে।

‘নিরাপদ তালিকা’ প্রতি দুই সপ্তাহে পর্যালোচনা করা হবে এবং প্রতিটি দেশের সবশেষ করোনভাইরাস বিকাশের উপর নির্ভর করে সামঞ্জস্য করা হবে। তবে ব্রাজিলের অবস্থার কারণেই ইইউ নিরাপদ দেশগুলোর তালিকা থেকে ব্রাজিলকে বাদ দিয়েছে। সাথে আছে বাংলাদেশ, ভারত, যুক্তরাষ্ট্র।

LEAVE A REPLY