ই-পাসপোর্ট যুগে প্রবেশ করেছে চট্টগ্রাম

0
239

ঢাকার পর প্রথম চট্টগ্রামের মানুষ পেতে যাচ্ছে সর্বাধুনিক ইলেকট্রনিক পাসপোর্ট (ই-পাসপোর্ট)।

আজ রোববার (১২ জুলাই) সকাল ১০টার আনুষ্ঠানিকভাবে চট্টগ্রামের মনসুরাবাদ অফিস থেকে আবেদনকারীদের ই-পাসপোর্টগুলো বিতরণ করা শুরু হয়।

এতে বিভাগীয় পাসপোর্ট ও ভিসা অফিস, মুনছুরাবাদ চট্টগ্রামের পরিচালক মো. আবু সাঈদসহ দায়িত্বশীল উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায়, দক্ষিণ এশিয়ার বাংলাদেশেই প্রথম ই-পাসপোর্ট চালু হয়েছে। এ পাসপোর্ট চালুর ক্ষেত্রে বিশ্বে ১১৯তম দেশ বাংলাদেশ। ই-পাসপোর্টে ৩৮ ধরনের নিরাপত্তা ফিচার থাকবে। বর্তমানে এমআরপি ডেটাবেইসে যেসব তথ্য আছে তা ই-পাসপোর্টে স্থানান্তর করা হবে। এছাড়া চোখের মণির ছবি ও দশ আঙুলের ছাপ থাকবে।

বিভাগীয় পাসপোর্ট ও ভিসা অফিস, মুনছুরাবাদ চট্টগ্রামের পরিচালক মো. আবু সাঈদ  জানান, ই-পাসপোর্টের কার্যক্রম শুরু করতে নির্দেশনা মোতাবেক উদ্বোধন শেষে করোনার কারণে কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছিল। সেই উদ্বোধনের সময় যারা ই-পাসপোর্টের আবেদন করেছিলেন, তারাই ই-পাসপোর্ট পাবেন। তবে করোনা ভাইরাস সহ বিভিন্ন চলমান পরিস্থিতির কারণে সাধারণ মানুষসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের সচেতনতা বেশী প্রয়োজন। ঘরোয়া পরিবেশে মুনছুরাবাদে ই-পাসপোর্ট বিতরণ করা হবে। নতুন এই ই-পাসপোর্ট সিস্টেমে সাধারণের ভোগান্তি অনেকাংশে কমে আসবে।

ই-পাসপোর্ট কারা পাবে এমন প্রশ্নে আবু সাঈদ জানান, মেয়াদোত্তীর্ণ অথবা নতুন করে আবেদনকারীদের দেওয়া হবে ই-পাসপোর্ট। তবে বর্তমানে ৬ মাসের বেশি মেয়াদ থাকা এমআরপি পাসপোর্ট যাদের আসে তাদের ই-পাসপোর্ট দেওয়া হবেনা।

পাসপোর্ট অফিস ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত ২২ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ই-পাসপোর্টের কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে প্রাথমিকভাবে প্রথম পর্যায়ে ঢাকায় উদ্বোধন করেছিলেন। এরপর এখন ২য় পর্যায়ে চট্টগ্রাম বিভাগেও আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়। এ কার্যক্রমের মাধ্যমে সাধারণ মানুষ নিজেদের পাসপোর্ট পেতে ভোগান্তি কমে আসবে। 

LEAVE A REPLY